অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফরের প্রস্তুতি কেন ডারউইনে?

গত ভারত সফরের আগে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে দুবাইয়ে ক্যাম্প করেছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার বাংলাদেশ সফরের আগে দলকে এশিয়ান কন্ডিশনের স্বাদ পাইয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। তবে এশিয়ার কোনো দেশ নয়, তারা ক্যাম্প করবে ডারউইনে। অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে কাছের। ডারউইনকে বলা হয়ে এশিয়ার প্রবেশদ্বার। অস্ট্রেলিয়ার এক টুকরো এশিয়া যেন এই ডারউইন। সেখানকার অধিবাসীদের মধ্যেও বড়সংখ্যক মানুষ দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার। বাংলাদেশ সফরের পোশাকি মহড়াটা সেখানেই তাই দিয়ে নিতে চাইছে অস্ট্রেলিয়া।

১০ আগস্ট থেকে এখানে সাত দিনের ক্যাম্প করবে অস্ট্রেলিয়া। ১৪ আগস্ট তিন দিনের প্রস্তুত ম্যাচ খেলবে এখানকার মারা ক্রিকেট গ্রাউন্ডে। নিজেদের মধ্যে দুই দলে ভাগ হয়ে ম্যাচটি খেলবে তারা। এরপর ১৮ আগস্ট রওনা দেবে বাংলাদেশের উদ্দেশে। বাংলাদেশেও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা আছে তাদের। ২৭ আগস্ট ঢাকায় শুরু হবে প্রথম টেস্ট। ৪ সেপ্টেম্বর সফরের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

এই সফরে শুধু টেস্টই খেলবে অস্ট্রেলিয়া। এই দুই দল সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিল ২০০৬ সালে। ১১ বছর পর মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল। বর্তমান অস্ট্রেলিয়া দলটির কারও বাংলাদেশে টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা নেই। অবশ্য এ বছরের শুরুতে ভারত সফরে তারা তরুণতর একটা দল নিয়ে বেশ জমিয়ে তুলেছিল চার টেস্টের সিরিজ। আবার স্পিনের বিপক্ষে পুরো দলের দুর্বলতাও প্রকাশ পেয়ে গিয়েছিল। আর বাংলাদেশও সর্বশেষ ইংল্যান্ডকে স্পিন-বিষে নীল করে জিতে নিয়েছিল একটি টেস্ট। একটুর জন্য আরেকটি টেস্ট জিততে পারেনি। না হলে ইংল্যান্ড ২-০-তে টেস্ট সিরিজ হেরে দেশে ফিরতে বাধ্য হতো।

অস্ট্রেলিয়ার এই দলকে তাই যথাসম্ভব এশিয়ার আবহাওয়ার স্বাদ দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। বাংলাদেশে এখন গ্রীষ্মকাল চলছে। আর ডারউইনের আবহাওয়াও ট্রপিক্যাল বা গ্রীষ্মপ্রধান। অস্ট্রেলিয়ার মূল ক্রিকেট খেলিয়ে অঞ্চলগুলোতে তাই যখন শীতকালীন অফ সিজন চলে, তখন বিকল্প হিসেবে সবচেয়ে ভালো জায়গা হলো এর উত্তরাঞ্চল।

এমনিতে অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলে ক্রিকেট ততটা জনপ্রিয় নয়। এই সুযোগে নর্দান টেরিটরি ক্রিকেট সংস্থা মূল ক্রিকেট স্রোতের সঙ্গে যোগসূত্রও বাড়াতে চাইছে। এনটি ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী টরি ওয়াটসন সাধারণ দর্শক ও উঠতি ক্রিকেটারদের আহ্বান জানিয়েছেন মাঠে আসার। খেলা, অনুশীলনে দলকে উৎসাহ দেওয়ার। একই সঙ্গে ক্রিকেটারদের কাছে থেকে দেখে কিছু শেখার। উত্তরাঞ্চল আরও বেশি করে অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে অংশ নিতে চায়। অস্ট্রেলিয়ার যুব দলে জ্যাক এডওয়ার্ডস ও পরম উপ্পলের মতো এই অঞ্চলের উঠতি প্রতিভা খেলছে। যেটি ক্রিকেটে নিজেদের অগ্রগতি মনে করে ডারউইন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*